ত্রিপুরায় বিজেপি’র পলিটিক্যাল ম্যাজিক

 


জিএসএস নিউজ :: ত্রিপুরার ভোটের ফলাফল নিয়ে প্রবল বিস্ময় ভারতজুড়েই। দীর্ঘদিনের শক্তিশালী বাম ঘাঁটির চরম পতন হতবাক করেছে অনেককে। দেশটির উত্তর-পূর্ব প্রান্তে নবাগত শক্তি বিজেপি’র সংহত অবস্থান নিশ্চিত হওয়ায় পাল্টে গেছে রাজনীতির হিসাব নিকাশ।

বলতে গেলে ভারতের এই নিভৃত কোণে একটি নিরব বিপ্লব ঘটে গিয়েছে, যার তাৎপর্য সুদূরপ্রসারী।

ভারতের চারদিকে চারটি ভৌগোলিক এলাকায় রাজনীতির ভরকেন্দ্রগুলো ছড়িয়ে আছে। সাধারণত উত্তর প্রান্তটি কৌশলগত ও শক্তিগত দিক থেকে ভারতীয় রাজনীতির নিয়ামক স্থল। মোদির নেতৃত্বে পশ্চিম প্রান্তের গুজরাত, মহারাষ্ট্রের সমর্থনে উত্তর ভারতের ক্ষমতাকেন্দ্র কব্জা করে বিজেপি।

এবার তারা প্রথমবারের মতো পূর্বাঞ্চলে শক্তি সঞ্চয় করেছে। বাঙালি অধ্যুষিত ত্রিপুরা-বিজয় পার্শ্ববর্তী অপরাপর বাংলাভাষী রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ ও আসামের রাজনীতিতে প্রভাব ফেলবে। এর ফলে বিজেপির আরেক লাভ হলো এই যে, দলটি সর্বভারতীয় স্তরে সাংগঠনিক স্বীকৃতি লিপিবদ্ধ করেছে। কেউ আর এখন বিজেপিকে বিশেষ অঞ্চলের রাজনৈতিক দল বলতে পারবে না।

এর আগে পশ্চিমবঙ্গের বাম দুর্গ জয়ের বিষয়টি আগাম আঁচ করা গিয়েছিল। মমতার উত্থানের ছাপ স্পষ্টভাবে টের পাওয়া গিয়েছিল আগেভাগেই। কিন্তু উত্তর-পূর্ব ভারতের ত্রিপুরায় এমন বিপর্যয় কেউ কল্পনাও করেননি। এ অঞ্চলের নাগাল্যান্ডেও বিজেপির উত্থান হয়েছে। অতীতে একটিও আসন না পেয়ে এবার ভূমিধস বিজয় ছিনিয়ে ত্রিপুরার ক্ষমতা দখল বিজেপি’র বিস্ময়কর রাজনৈতিক সাফল্যেরই প্রমাণবহ। মেঘালয়েও কংগ্রেসের বিজয়কে ছাপিয়ে সরকার গড়ছে বিজেপি’র মিত্র। ত্রিপুরাকে কেন্দ্র করে সমগ্র উত্তর-পূর্ব ভারতে বিজেপিই এখন শেষ কথা।

ভারতের সবচেয়ে গরিব মুখ্যমন্ত্রী ও ভালো মানুষ হিসাবে প্রসিদ্ধ ত্রিপুরার বামনেতা মানিক সরকার পর্যন্ত ফলাফলকে বলেছেন ‘অপ্রত্যাশিত’। উন্নয়নের নানা দৃশ্যমান প্যাকেজ দিয়ে অবহেলিত ও পশ্চাৎপদ ত্রিপুরাবাসীর মনোরঞ্জনে বিজেপি’র পলিটিক্যাল ম্যাজিক চমৎকারভাবে কাজে লেগেছে।

বিজেপি’র ‘পরিবর্তন’ ও ‘উন্নয়ন’-এর ডাকে স্রোতের মতো মিশেছে ভোটাররা। ত্রিপুরার রাজনৈতিক রণাঙ্গনে মতার্দশিক আবেদন ও জীবনের বাস্তব চাহিদার মুখোমুখি অবস্থানে জয়ী হয়েছে বাস্তবতা। মানুষ ভালো থাকতে চায়, জীবনমান বাড়াতে চায়, উন্নত জীবনের পথে যেতে চায়, ত্রিপুরায়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*