Home / চলতি খবর /  সহিংসতার শঙ্কা নেই পূজায় :  ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম

 সহিংসতার শঙ্কা নেই পূজায় :  ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম

আসাদুজ্জামান বাবুল : “পূজার সময় নিরাপত্তা নিশ্চিতে ঢাকার সব পুলিশ লাইনের পাশাপাশি আলাদা পুলিশও প্রস্তুত রাখা হয়েছে কোনো হামলার আশঙ্কা যদিও নেই, তবে হামলা হলে যথেষ্ট প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের।” রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দির পরিদর্শনে এসে বৃহস্পতিবার এ কথা বলেছেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম।তিনি বলেন, “পূজাকে কেন্দ্র করে কোনো সহিংস ঘটনার তথ্য আমাদের কাছে নেই। ঝুঁকিপূর্ণ কোনো মণ্ডপের তথ্য আমরা পাইনি।”

উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকালে দেবী বোধনের মধ্যে দিয়ে শুরু হবে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা।এবার রাজধানীর ২৩৭টি পূজা অনুষ্ঠিত হবে, যার মধ্যে চারটি পারিবারিক। ২৩৩টি পূজার মধ্যে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির, রামকৃষ্ণ মিশন, বনানী ও কলবাগানের সার্বজনীন দূর্গাপূজাকে ‘বিশেষ’ শ্রেণিভুক্ত করেছে ডিএমপি।

এছাড়া সিদ্ধেশ্বরী কালীবাড়ি, রমনা কালীবাড়ি, বসুন্ধরা সার্বজনীন দূর্গাপূজা, উত্তরা ও কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটের পূজাকে ‘বৃহত্তম’ শ্রেণিতে রাখা হয়েছে।এছাড়া রাজধানীতে ৮৬টি মণ্ডপকে দুই তারকা, ৭৭টি মণ্ডপকে এক তারকা এবং ৬১টি মণ্ডপকে সাধারণ ক্যাটাগরিতে রেখেছে পুলিশ।পূজায় যেসব মন্দিরের পাশে মেলা হবে তা সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে ডিএমপির পক্ষ থেকে।গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্বরা যেসব মন্দিরে যাবেন, সেখানে ডগ স্কোয়াড ও মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশী এরই মধ্যে শেষ হয়েছে। এছাড়া পূজার সময় ঢাকায় বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাও রেখেছে ডিএমপি।

প্রতিটি মণ্ডপে স্বেচ্ছাসেবকদের বিশেষ আর্মব্যান্ড পরার নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।এদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনও বৃহস্পতিবার ঢাকেশ্বরী মন্দির পরিদর্শন করেছেন।  সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পূজার সময় রাজধানীর কোথাও জলাবদ্ধতা হলে ঢাকা দক্ষিণ সিটির ইমারজেন্সি রেন্সপন্স টিম সাথে সাথে মাঠে নামবে।ভারী জলাবদ্ধতা হলে সঙ্গে সঙ্গে তাদের মোতায়েন করা হবে বলে জানান তিনি।

দুর্গাপূজার সার্বিক প্রস্তুতির বিষয়ে বৃহস্পতিবার ঢাকেশ্বরী মন্দিরে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটার মধ্যে সব মন্ঢপে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ করা হবে।সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কমিটির সাধারণ সম্পাদক কিশোর রঞ্জন মণ্ডল জানান, গতবার রাজধানীতে ২২৭টি মণ্ডপ ছিল। এবার তা বেড়ে ২৩৭টি হয়েচে।কমিটির সভাপতি শৈলেন্দ্রনাথ মজুমদার সহ অন্যান্যরাও উপস্থিত ছিলেন ছিলেন এ সম্মেলনে।এবছর দুর্গোৎসব ৪ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে শুরু হয়ে ৮ অক্টোবর দশমীর মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটবে।

 

About gssnews2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*