Home / চলতি খবর / সিলেটের জৈন্তাপুরে ২ বাংলো বাড়ি একটি বাড়ির অংশ, দুইটি দোকান ও একটি বাড়ির প্রাচীর উচ্ছেদ

সিলেটের জৈন্তাপুরে ২ বাংলো বাড়ি একটি বাড়ির অংশ, দুইটি দোকান ও একটি বাড়ির প্রাচীর উচ্ছেদ

সালমান শাহ্‌ জৈন্তাপুর সিলেট : সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ৬নং চিকনাগুল ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পচ্ছিম ঠাকুরের মাটি গ্রামের কবরস্থানের ভূমি এলাকার প্রভাশালী ব্যাক্তিগণ অবৈধভাবে বসতবাড়ী ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগকরে আসতেছে।বিভিন্ন সময়ে এলাকাবাসী সভা সমাবেশ করে তাদের সাথে পেরে উঠেনি এলাকার সাধারণ মানুষ। পরে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে আব্দুল করিম, হোসেন আলী হোছই,হোসেন আলী,মৃত আব্দুল মান্নান, মদরিছ আলী,বাদী হয়ে কবরস্থানে ভুমি উদ্ধারে ২০১২ সালে মামলা করেন সিলেট কোর্টে। সেই ধারাবাহিকতা মামলা চালিয়ে যান তাঁরা। চলিত মাসে সিলেটের জেলা প্রশাসক উচ্ছেদ অভিযানের জন্য আদেশ জারি করেন। ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আদেশ কপি পাঠানো হয় জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট আদেশ কপি পাওয়ার পরই গত সপ্তাহে পরিদর্শন করেন জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরিন করিম। গত কাল বুধবার(৯ অক্টোবর) জৈন্তাপুর উপজেলা ভুমি কমিশনার ভারপ্রাপ্ত লুসিকান্ত ও উপজেলা সারবেয়ার ফতেহপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা স্থানীয় মরিলদের নিয়ে কবরস্থানে ভুমি জরিপ করেন এবং অবৈধ স্থাপনা শনাক্ত করেন। পরে বেলা ৩টায় জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উপস্থিত হয়ে ভুমি দখল করে থাকা ব্যাক্তিগনকে আজ সকাল ১০টার মধ্যে নিজ উদ্যোগ বাসাবাড়ি থেকে আসবাবপত্র শরিয়ে নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানান এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য আছাব আলী কে দায়িত্ব দেন মেসেজ টি সবার বাড়িতে পৌঁছে দিতে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ ঘটিকায় জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরিন করিম ও উপজেলা ভারপ্রাপ্ত ভুমি কমিশনার উপস্থিত থেকে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে দুইটি বাংলো বাড়ি,  একটি বাড়ির অংশ, দুইটি দোকান, একটি বাড়ির প্রাচীর উচ্ছেদ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জৈন্তাপুর উপজেলা ভুমি কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) লুসিকান্ত, হরিপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারী, জৈন্তাপুর মডেল থানার  এস আই আজিজসহ সাথে ১৬ জন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান  ও সংশ্লিষ্ট  মেম্বার উপস্থিত ছিলেন

সমাজ সেবক আব্দুল মুহিত চৌধুরী বলেন এলাকাবাসীর বহুদিনের পত্যাশী দাবী ছিল কবরস্থান ভূমি উদ্ধারের আজ সে পত্যাশা পুরন হয়েছে। জানাজা পড়ার জন্য আজ সেই ব্যবস্থা করে দিয়ে এক দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌরিন করিম আমরা উনার কাছে চির কৃতজ্ঞ এবং কবরস্থানে আরো কিছু ভূমি বিভিন্ন জাল দলিল করে বন্দবস্ত নিয়েছে কিছু লোক তা উদ্ধারে এলাকার মানুষদের নিয়ে অচিরেই বৈঠক করে সে গুলো উদ্ধারে কোটে মামলা করবেন বলে জানান তিনি। যুব সমাজের পক্ষে থেকে বাদী মৃত মদরিছ আলীর পুত্র শাহিন আহমদ বলেন আমাদের কবরস্থানের ভূমি অবৈধভাবে জুর দখল করে থাকা ব্যাক্তিণদের অনেক বার বলা হয়েছে আমাদের কবরস্থানের কোন জানাজা করার জন্য জায়গায় নেই আপনার জানাজা পড়ার জন্য কিছু জায়গা ছাড়েন কিন্তু তারা ছাড় দিতে রাজি হয়নি আজ এমন অভিযানে আমার এলাকার যুবসমাজ সহ সাধারণত মানুষ অনেক আনন্দিত এলাকাবাসী পক্ষে জৈন্তাপুরে ইতিহাস সৃষ্টি কারি সফল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরিন করিম মহোদয়ের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

About gssnews2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*