Home / আন্তর্জাতিক / আসামের সরকারি মাদ্রাসায় আর ধর্মীয় শিক্ষা নয়, এগুলি বন্ধ  করে দেওয়া হবে- শিক্ষা মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার ঘোষণা :  তীব্র প্রতিক্রিয়া  গোটা রাজ্যে 

আসামের সরকারি মাদ্রাসায় আর ধর্মীয় শিক্ষা নয়, এগুলি বন্ধ  করে দেওয়া হবে- শিক্ষা মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার ঘোষণা :  তীব্র প্রতিক্রিয়া  গোটা রাজ্যে 

তাহের আহমেদ মজুমদার (আসাম) : অসমে আর সরকারি  খরছে ধর্মীয় শিক্ষা  চলবে না। আর একই ভাবে শিক্ষার নামে চলা ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান   সরকারি  মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়া হবে। বুধবার অসমের রাজধানী  দিসপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এভাবে ঘোষণা দেন  অসমের প্রতাপশালী শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিত্ত মন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্ব শর্মা । মন্ত্রী হিমন্ত শর্মা আগামী চার থেকে পাঁচ মাসের মধ্যেই   অসমের সরকারি  মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলগুলো   বন্ধ করে দেওয়া হবে। তিনি আরও জানান  ইতিমধ্যে এনিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।শিক্ষা মন্ত্রী  হিমন্ত বিশ্ব শর্মার ভাষায় আরবি ভাষা কিংবা অমুক ভাষা শেখানো, ধর্মগ্রন্থ শেখানো সরকারের কাজ নয়।। রাষ্ট্রের টাকায় স্কুলে ধর্মগ্রন্হ শেখানো হলে তো গীতা, বাইবেলও শেখাতে হবে। সেই সঙ্গে  শিক্ষা  মন্ত্রীর বক্তব্য  অসমের সরকারি  মাদ্রাসা, হাইমাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলগুলিকে আগামী চার – পাঁচ মাসের মধ্যে করে দেওয়া হবে। তবে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কে হাইস্কুল এবং হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলে পরিনত করা হবে। শিক্ষকদের সমস্যা হবে না তাঁরা এসব স্কুলে পড়াবেন। কিন্তু্ু য়ারা ধর্মীয়  শিক্ষার পাঠ দিচ্ছেন তাঁদের আর কাজ থাকবে না।তবে তারা ঘরে বসে অবসর পর্য়ন্ত তাঁরা নিয়মিতভাবে মাস মাইনে পেয়ে য়াবেন।অসমের প্রতাপশালী শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিত্ত মন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্ব শর্মা র মতে, কেউ নিজের টাকা খরছ করে ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে শিক্ষা দিতে পারেন তবে রাষ্ট্র  ও সরকারি খরছে চলতে থাকা ধর্মীয় শিক্ষার ব্যবস্হা বন্ধ করা হবে। এর আগে মন্ত্রী  হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  অসমের সরকারি মাদ্রাসা গুলিতে দীর্ঘ দিন থেকে চলে আসা শুক্রবারের ছুটি তুলে দেন। একইভাবে  অসমের সরকারি মাদ্রাসা গুলির    পরিচালনায় থাকা ডাইরেক্টর কেও ভেঙ্গে দেন।। একইভাবে বহু পুরানো মাদ্রাসা শিক্ষার বোর্ড টি ভেঙ্গে দেওয়ার প্রয়াস নেন মন্ত্রী হিমন্ত। তবে সেসময় রাজ্যজুড়ে তীব্র  প্রতিবাদ শুরু হওয়াতে শুধু রবিবারে ছুটি শুক্রবারের পরিবর্তে করে বাকি গুলি ছেড়ে দেন। এবার কিন্তু্ু অসমের প্রতাপশালী শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিত্ত মন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  সরাসরি  অসমে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় চলতে থাকা সরকারি টাইটেল, সিনিয়র, ও প্রিসিনিয়র ও হাই মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোল  গুলির উপর কোপ বসাতে য়াচ্ছে রাজ্যের বিজেপির নেতৃত্বে থাকা সরকারটি। বুধবার শিক্ষা মন্ত্রীর ঘোষনা দেওয়ার পর থেকে গোটা অসমের সংখ্যালঘু মুসলিম সমাজের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এমুহূর্তে অসমে সরকারি মাদ্রাসার সংখ্যা টা হল ৪৩৪ টা। এিস্তরীয় মার্দ্রাসা শিক্ষার জন্য রয়েছে  প্রি- সিনিয়র ( এল,পি), সিনিয়র ( এমই ও হাইস্কুল স্তর),এবং টাইটেল মাদ্রাসা ( কলেজস্ত পর্য়ায়ে)।অন্যদিকে সংস্কৃত টোল  রয়েছে মাএ ৯৭ টা তবে রাজ্যের মাদ্রাসার তুলনায় সংস্কৃত টোল গুলির অবস্থা  খুবই খারাপ রয়েছে। মাদ্রাসা  গুলিতে ছাএ থাকলেও কিন্তুু রাজ্য সরকারের অবহেলার জন্য শিক্ষকের হার প্রায় কম। এদিকে শিক্ষা মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  য়েভাবে তাঁর বক্তব্য  রাখছেন  এতে গোটা রাজ্যে তীব্র  প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি  হয়েছে। মাদ্রাসা শিক্ষার সাথে পরিচিত ব্যাক্তিরা তাদের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলছেন, শিক্ষা  মন্ত্রীর নিশ্চয় কোথাও ভূল হচ্ছে। মাদ্রাসা মানেই ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  নয়।মধ্য শিক্ষা পর্ষদের পাঠ্যক্রম অনুসারে মাদ্রাসায় অঙ্ক – ইংরেজি – বিঙ্গান সহ সব কটি বিষয়ে পাঠ দেওয়া হয়। শুধু এরগুলির সঙ্গে কোরান ও হাদিস এবং উর্দু  ভাষার  এর শিক্ষা প্রদান করা হয়। সেবার মাধ্যমে চলা স্কুল গুলিথেকে বেশি বিষয় পড়ানো হয় মাদ্রাসায়। অসমের মুসলিম বিদ্বজ্জনরা অভিযোগ তুলেছেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  য়ে কথা বলছেন তার মধ্যে শিক্ষা ব্যবস্হার সংস্কার ঘটানোর কোনও চিন্তা চর্চা নেই। তার মুখে য়াআসে সেটা তিনি বলে দিচ্ছেন।নিজের  রাজনৈতিক ইচ্ছে  পূরণ করতে। অসমের প্রতাপশালী শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিত্ত মন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বুধবার য়েভাবে অসমের সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়া কথা বলেছেন  এনিয়ে সারা অসম মাদ্রাসা ছাএ সংস্থা  ( আমসা) সহ বিভিন্ন  সংগঠন  তীব্র  প্রতিবাদ জানিয়েছে।ছাএ সংস্হাটি হুমকিও দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রী  হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  অসমের সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়ার পথে গেলে গোটা রাজ্যজুড়ে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবেন তারা। এদিকে সারা অসম মাদ্রাসা  শিক্ষক ও কর্মচারী সংস্হার  প্রাক্তন সভাপতি  তথা বদরপুর টাইটেল মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী  জানিয়েছেন মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার  অসমের সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়া ঘোষণা পুরোপুরিভাবে রাজনৈতিক একটা ইস্যুন।তিনি আরও জানিয়েছেন সরকারি মাদ্রাসা গুলির শিক্ষা ব্যবস্হা অনেক এগিয়ে।  সংস্কৃত টোল গুলি থেকে। আর টোলের সংখ্যা  নগন্য  । কিন্তু্ু শিক্ষা মন্ত্রী র মূল উদ্দেশ্য হল রাজ্যের সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়া। তাই তিনি এভাবে কথা বলছেন। শুধুই ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রাখার জন্য হাতেগনা কয়টা টোলকেও বন্ধ করে দেওয়ার কথা বলছেন। এদিকে বিশিষ্ট আইনজীবী লেখক ইমাদ উদ্দিন বুলবুলের কথায় হিমন্ত বিশ্ব শর্মা য়ে ঘোষণা করেছেন সেটা খুবই মারাত্মক ব্যাপার ও ক্ষতিকারক। শিক্ষা মন্ত্রী হিমন্তের এঘোষনার পিছনে একটা রাজনৈতিক দর্শন।তিনি  আরও বলেন  অসমের শতাব্দী পুরাতন মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যাবস্হা পুরোদস্তুর সাংবিধানিক। আর হিমন্ত য়েভাবে বলছেন সেটা হলে  মানুষের সাংবিধানিক অধিকারের  উপর আঘাত আনা হবে বলে জানান  বুলবুল।একইভাবে  গৌহাটি  হাইকোর্টের বিশিষ্ট  আইনজীবী হাফিজ রশিদ আহমেদ চৌধুরী জানিয়েছেন,অসমের প্রতাপশালী শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিত্ত মন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্ব শর্মা য়েকথা বলছেন সেটা তাঁর ব্যাক্তিগত সিদ্ধান্তের কথা বলেছেন।তিনি আরও বলেন ভরসা রাখতে হবে দেশের আইন ও সংবিধানের উপর। এদেশের সংবিধানে ধর্মীয় শিক্ষার অধিকার দেওয়া আছে তাই তিনি সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা নিয়ে চিন্তার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন দেশে আইন আছে এভাবে কেউ সংবিধানের উপর কোপ বসাতে পারবে না। তাই আইনের আশ্রয় নিলে সব উড়ে য়াবে বলে জানিয়েছেন  আইনজীবী হাফিজ রশিদ আহমেদ চৌধুরী।তবে শিলচরের লোকসভা আসনের সাংসদ  ডঃ রাজদীপ রায় তার প্রতিক্রিয়ায় তিনি জানিয়েছেন মন্ত্রী হিমন্ত  বিশ্ব শর্মা য়েকথা বলেছেন এতে তিনি একমত।সরকারি টাকায় ধর্মশিক্ষা চলতে পারেনা। রাজদীপ আরও জানিয়েছেন এদেশে ধর্মনিরপেক্ষতার নামে বিশেষ সম্প্রদায়কে শুধু তোষন করা হচ্ছে সেটা তিনি বন্ধ করতে বলেন। অসমের প্রতাপশালী শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিত্ত মন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্ব শর্মা সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র  প্রতিক্রিয়া রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের সরকারি মাদ্রাসা গুলির সঙ্গে য়ুক্ত শিক্ষক সংস্হাগুলিও তাদের পরবর্তী প্রদক্ষেপ নিয়ে শীর্ঘ্রই  মিলিত হচ্ছে বলে জানা গেছে। আর বিভিন্ন সংগঠন শিক্ষা মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার অসমের সরকারি মাদ্রাসা গুলি বন্ধ করার ঘোষণা তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে।

About gssnews2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*