Home / চলতি খবর / ইসলামপুরে লাখ টাকা রাজস্ব আদায় হলেও উন্নয়নের ছোঁয়া নেই গাইবান্ধা বাজারে

ইসলামপুরে লাখ টাকা রাজস্ব আদায় হলেও উন্নয়নের ছোঁয়া নেই গাইবান্ধা বাজারে

রোকনুজ্জামান সবুজ, জামালপুর: ইসলামপুর উপজেলার নাপিতেরচর-গাইবান্ধা বাজারের প্রতি বছর লাখ লাখ টাকা রাজস্ব আদায় হলেও উন্নয়নের কোন ছোঁয়া লাগেনি। ফলে চলাচলে ক্রেতা-বিক্রেতাসহ পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ।
জানা যায়, দীর্ঘদিন সংস্কার ও উন্নয়নমূলক কাজ না হওয়ায় নাপিতেরচর-গাইবান্ধা গরুর-হাট দিনদিন বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। হাটের দক্ষিণ পাশের প্রবেশ পথে বৃহৎ আকারে গত্যের সৃষ্টি হয়ে বাজারে প্রবেশ করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।
মনিরুল ইসলাম কালা মানিক জানান, সামান্য বৃষ্টিতেই হাটের অধিকাংশ স্থানে হাঁটু পানি জমে যায়। এতে ক্রেতা-বিক্রেতাদের চলাচল করতে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন সাদা মিয়া জানান, উপজেলার এ হাট থেকে প্রতি বছর লাখ লাখ টাকা সরকারের কোষাগারে আয় হলেও কোন উন্নয়ন হয়নি।
ব্যবসায়ী সুলতান আকন্দ জানান, গত বছর এ হাটের সরকারি নিলাম দর ছিল প্রায় বিশ লাখ টাকা। চলতি বছরেও প্রায় একই নিলাম দর রয়েছে। কিন্তু বাজারের কোন উন্নয়ন নেই।
সরেজমিনে দেখা গেছে, ড্রেনেজ ব্যবস্থা যতটুকু আছে, সেটার অবস্থাও অত্যন্ত লাজুক। সামান্য একটু বৃষ্টি হলেই বাজারের অধিকাংশ স্থানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। উপজেলার সর্ববৃহৎ গরুর-হাট নাপিতেরচর বাজার থেকে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আয় হলেও জনসাধারণের জন্য কোন সুযোগ-সুবিধা নেই। বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থা অত্যন্ত করুণ। দীর্ঘদিন বাজারের ড্রেন পরিস্কার না করায় সামান্য বৃষ্টিতে বর্জ্য জমে ড্রেনের পঁচা পানি উপচে পড়ে দূর্গন্ধের সৃষ্টি হয়ে দোকানের ভিতর ঢুকে পড়ে। এ ছাড়া বাজারের পথগুলো সংস্কারের অভাবে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বাজারের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে ছোট ছোট ঘর তৈরি করে ব্যবসা করায় নানা ধরণের প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হচ্ছে। হাটে আগত লোকদের দাঁড়ানোর কোন ছাউনী নেই। সরকারি সেটঘরগুলো দখল করে রেখেছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। দীর্ঘদিন ধরে বাজারের সড়কগুলো দখল করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছে। এতে হাটে আগত লোকদের নানা ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। বাজারটি নানা ধরণের সমস্যায় জর্জরিত হলেও সমাধানের কোনো উদ্যোগ নেই।
এলাকাবাসী জানান, স্থানীয়রা মাঝে মধ্যেই নিজস্ব অর্থায়নে মাটি কেটে রাস্তা চলাচলের উপযুক্ত করেন।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, ‘হাটের উন্নয়নে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

About gssnews2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*