Home / চলতি খবর / দেশীয় অস্ত্রের হামলায় মুমুর্ষ তেরা মিয়া

দেশীয় অস্ত্রের হামলায় মুমুর্ষ তেরা মিয়া

চিনু রঞ্জন তালুকদার, মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার টেংরা ইউনিয়নের রামভদ্রপুর গ্রামের সর্বজন পরিচিত ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক তেরা মিয়া (৭০) পূর্বপরিকল্পিত ভাবে প্রতিবেশীর অতর্কিত হামলায় গুরুতর আহত হয়ে মুমুর্ষ অবস্থায় রয়েছেন। আশংকাজনক অবস্থায় রয়েছেন একই পরিবারের সাদিকুর রহমান ওরফে দিপু (২৪), অপু মিয়া (২৬), বাচ্চু মিয়া (৩৫)। এ ঘঠনায় সাদিকুর রহমান ওরফে দিপু বাদী হয়ে রাজনগর থানায় প্রতিবেশী জুবেল মিয়া (২২), নাছিম মিয়া (৩০), আঃ সালাম (৫৮), কবির মিয়া (৫৫), হারুনুর রশিদ (৫০), সুলতানা বেগম (৪৮), ইমা বেগম (২৪) সহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪জনকে আসামী করে মামলা ( নং- ০৮/ তারিখ ঃ ১৬/০৫/২০২০ইং) দায়ের করেছেন। এ সংবাদ পরিবেশন পর্যন্ত এ ঘঠনায় জড়িতদের গ্রেফতার করতে পারেনি রাজনগর থানার পুলিশ। মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে- পূর্ব শক্রতার জের ধরে গত ১৫ সন্ধায় প্রতিবেশী আঃ সালাম এর নেতৃত্বে দা, ঝাটা, লোহার রড,রুল, লাঠি-সোটাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রথমে আব্দুর রাজ্জাক তেরা মিয়ার বাড়ীতে গিয়ে তার নাম ধরে ডাকতে থাকে এবং অশ¬ীলভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। তেরা মিয়া এসব কিছুর প্রতিবাদ করলে তার মাথা লক্ষ করে ছেদ মারলে মারান্তক গুরুতর রক্তাক্ত কাটা জখম করে মাঠিতে ফেলে দেয়। এ সময় তার  চিৎকার শুনে সাদিকুর রহমান ওরফে দিপু, অপু মিয়া ও বাচ্চু মিয়াসহ অন্যান্য লোকজন এগিয়ে আসলে একইভাবে তাদের উপরও হামলা চালায়। এ সময় সাদিকুর রহমান ওরফে দিপু‘র একটি চোঁখ লক্ষ করে হামলা চালালে বাম চোঁখের নিচে পড়ে রক্তাক্ত কাটা জখম করে। এ সময় ঘঠনাস্থালে অন্যান্য লোকজনও মারান্তকভাবে আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত ডাক্তার আব্দুর রাজ্জাক তেরা মিয়াকে সিলেট ওসমানী হাসপাতলে রেফার্ড করেন। এ ব্যপারে জানতে চাইলে রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল হাসিম ঘঠনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন- ঘঠনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। জড়িতদের গ্রেফতার করার জন্য জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।

About gssnews2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*