Home / চলতি খবর / কিশোরগঞ্জে নতুন ৫২ জনের করোনা শনাক্ত, একজনের মৃত্যু :  মোট শনাক্ত ১৩১৭

কিশোরগঞ্জে নতুন ৫২ জনের করোনা শনাক্ত, একজনের মৃত্যু :  মোট শনাক্ত ১৩১৭

ফারুকুজ্জামান,কিশোরগঞ্জ :  কিশোরগঞ্জে সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) দিবাগত রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে জেলায় নতুন করে ৫২ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। ফলে এ পর্যন্ত জেলার ১৩ উপজেলায় এক হাজার ৩১৭ জনের শরীরে ধরা পড়েছে করোনা। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৫৪২ জন। মারা গেছেন ২২ জন। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) দিবাগত রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে জেলায় নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ৫২ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ২০ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৬ জন, তাড়াইল উপজেলায় ১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৩ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩ জন, ভৈরব উপজেলায় ১৬ জন ও নিকলী উপজেলায় ২ জন রয়েছেন।
এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জেলায় নতুন করে আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি ভৈরব উপজেলার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. শহীদুল হক (৬৫)। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় তিনি মারা গেছেন। গত ১৫ জুন তাঁর করোনা শনাক্ত হয়েছিল। পরে অবস্থার অবনতি হলে ২১ জুন তাঁকে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। অন্যদিকে নতুন করে ৭ জন করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন। নতুন সুস্থ হওয়া ৭ জনের সবাই কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার। গত ১৭ জুন জেলায় সংগৃহীত ১৮৮ জনের নমুনা মহাখালীর ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথ (আইপিএইচ) এ এবং শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রি-আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তিকৃত জরুরী রোগীসহ বৃহস্পতিবার (১৮ জুন), রোববার (২১ জুন), সোমবার (২২ জুন), বুধবার (২৪ জুন) ও বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) সংগৃহীত ১৬৯ জনের নমুনা কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়। দুইটি ল্যাবে মোট ৩৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বুধবার (২৪ জুন) পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১২৬৫ জন। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) নতুন করে আরো ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩১৭ জনে। এদিকে জেলায় করোনাভাইরাস থেকে নতুন করে ৭ জন সুস্থ হয়েছেন। এর আগে জেলায় সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল ৫৩৫ জন। ফলে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৪২ জন। বর্তমানে অন্য জেলায় শনাক্তকৃত ২ জন করোনা পজেটিভসহ জেলায় মোট ৭৫৫ জন করোনা রোগী এবং ৯ জন সাসপেক্টটেড/নেগেটিভ বিভিন্ন হাসপাতাল ও নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন। এর মধ্যে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে তিনজন কোভিড-১৯ পজেটিভ রোগী ভর্তি রয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, প্রকাশিত ৩৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে নতুন করে মোট ৫২ জনের পজেটিভ ও ২৯৭ জনের নেগেটিভ এসেছে। এছাড়া পুরাতন কোভিড-১৯ পজেটিভ ৮ জনের আবারো পজেটিভ এসেছে। নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া এই ৫২ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ২০ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৬ জন, তাড়াইল উপজেলায় ১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৩ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩ জন, ভৈরব উপজেলায় ১৬ জন ও নিকলী উপজেলায় ২ জন রয়েছেন। ফলে বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ১৩১৭ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।
উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ২৬৮ জন, হোসেনপুর উপজেলার ২৭ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৮৯ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৬৯ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ৫৪ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৭০ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৯১ জন, ভৈরব উপজেলায় ৪৮৪ জন, নিকলী উপজেলায় ২০ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ৮২ জন, ইটনা উপজেলায় ২৫ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৩০ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৮ জন এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২২ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।
সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় ভৈরবের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. শহীদুল হক মারা যান। উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৪ জন, হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, কটিয়াদী উপজেলার ১ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ১ জন, ভৈরব উপজেলার ১০ জন, নিকলী উপজেলার ১ জন, বাজিতপুর উপজেলার ১ জন ও মিঠামইন উপজেলার ১ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।

 

About gssnews2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*