চট্টগ্রাম   বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১  

শিরোনাম

সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদকে বিচারের আওতায় আনতে বাধা কোথায়

জিএসএসনিউজ ডেস্ক :    |    ০৬:৫২ পিএম, ২০২০-০৯-২৬

সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদকে বিচারের আওতায় আনতে বাধা কোথায়

॥ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান ॥ দেশের গুরুত্বপূর্ণ অর্থ খাতকে বাঁচাতে হলে হলমার্ক শুধু নয়, তৎকালীন সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদ থেকে শুরু করতে হবে শুদ্ধি অভিযান। অস্বীকারের উপায় নেই, আমাদের ব্যাংক খাত লুটেরাদের কবলে পড়ে অনেক আগেই ফোকলা হয়ে গেছে। সোনালী ব্যাংকের সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা লোপাটের সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের একজন প্রকাশ্যে টক শো করে বেড়ায়! যে একাই সাড়ে তিন শ কোটি টাকা ভাগ পায় বলে চাউর আছে।

এই চিহ্নিত লুটেরা-ডাকাতরা যখন প্রকাশ্যে জাতিকে জ্ঞান দেওয়ার মওকা পেয়ে যায়, তখন পর্দার অন্তরালের লুটেরা চক্র ব্যাংকিং খাতকে ফোকলা করে দেওয়ার সাহস পায়। ফলে সে লুটের ভাইরাসে আক্রান্ত হয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকও। আর আমাদের দেশের টাকা চলে যায় আন্তর্জাতিক জুয়ার আসরে!ওই ডাকাতদের ধরা হলে যা হতো না বলে মনে করেন অপরাধ বিশেষজ্ঞরা। 

গণমাধ্যমে প্রায়ই খবর শিরোনাম হয় অর্থ পাচারের দিক দিয়ে আমাদের দেশের অবস্থান দ্বিতীয়। এ টাকা ব্যাংক থেকেই তো উঠানো হয়। আর পাচার হয় ব্যাংকিং চ্যানেলসহ নানাভাবে। এ টাকা যারা পাচার করেছে, তারা কারা এবং উৎস কী- তা জানা বা উদ্ধার করা তো কঠিন বিষয় নয়। এগুলোর রহস্য উদঘাটন জরুরি। অন্যথায় এ খাতের বিরাজমান নৈরাজ্য সামলানো কঠিন হবে। 
 
অর্থ খাতের আরেকটি বড় মার্কেট শেয়ারবাজার ১৯৯৬ সাল থেকে এক রকম অবাধে লুট হয়ে আসছে। লুটেরারা চিহ্নিত হলেও বিচার হয়নি, হচ্ছে না। অথচ তাদের খপ্পরে পড়ে ক্ষুদ্র ও মাঝারি লাখ লাখ বিনিয়োগকারী ফতুর হয়ে গেছে। কয়েকজন আত্মহত্যাও করেছে। আজও শেয়ারবাজার নিয়ে সর্বনাশা খেলায় মত্ত কথিত গেমলাররা। ফাঁকা আওয়াজ ছাড়া দায়িত্বশীলদের কার্যকর কোনো উদ্যোগ নেই।

চিহ্নিত লুটেরাদের মাধ্যমে একটি ব্যাংকের সিংহ ভাগ টাকা হাওয়া হয়ে যায়। দায়ীদের চৌদ্দ শিকে না ঢুকিয়ে বরাবরের মতো ব্যাংকটির নাম বদলে দেওয়া হয়। অনেকটা বিডিআরের নাম বদলের মতো। মূলে না গিয়ে এভাবে আশকারা দেওয়ায় ব্যাংকিং ও অর্থ খাত লুটেরাদের টার্গেটে পরিণত হয়েছে। সুযোগ বুঝে দুষ্টচক্র আখেরি কামাইয়ের মধ্য দিয়ে জনগণের অর্থ যাচ্চেতাইভোবে হাতিয়ে নিচ্ছে।


আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে যে হলমার্ক ও সোনালী ব্যাংক দিয়ে লুটপাটের সূত্রপাত, সেখান থেকে অর্থাৎ হলমার্কের পাশাপাশি তৎকালীন সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদকেও একইভাবে মামলায় যুক্ত করা না হলে ব্যাংক-অর্থ খাতের চলমান দুর্নীতি ও পাহাড়সম অনিয়মের অবসান হবে না বলে অপরাধ বিশেষজ্ঞদের অভিমত।

ব্যাংকিং তথা অর্থ খাত যে দেশী-বিদেশী মাফিয়া চক্রের বলে পড়েছে, চলে গেছে অনেকটা দুর্বৃত্তদের নিয়ন্ত্রণে, এ খাতে ভর করেছে আন্তর্জাতিক বাজিগররা- অর্থনীতিবিদরা এসব আশঙ্কার কথা অনেক আগেই বলেছেন। যার বাস্তব চিত্র এখন উঠে আসছে দেশের অর্থ খাতের অভিভাবকদের মুখে।তাদের আশঙ্কা যে অমুলক নয়, করোনাকালে স্বাস্থ্য খাতের অর্থ লোপাট সে বিষয়টি শতভাগ সত্যে পরিণত করেছে।  

কার না জানা যে, দেশের উন্নয়নে অর্থ খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আর এই অর্থের জোগানদার এ দেশের সাধারণ মানুষ- প্রবাসী শ্রমিক-কৃষক-শ্রমিক-মুটেমজুর। এদের টাকা নিয়ে ছিনিমিনি খেলার অধিকার কারো নেই। তাই অর্থ খাতে গতি আনতে লুটের অর্থ আদায়ে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা এবং লুটের পথগুলো বন্ধে প্রয়োজনীয় কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি।

অর্থ খাতে নৈরাজ্য কতটা সীমা ছাড়িয়ে, ফরিদপুরের ছাত্রলীগ নেতার দুই হাজার কোটি টাকা পাচার এর জ্বলন্ত উদাহরণ।প্রায় প্রতিদিনই অভাবনীয় লুটপাটের খবর গণমাধ্যমে সংবাদ শিরোনাম হয়ে আসছে।পিয়ন-ড্রাইভার যখন শতকোটি টাকার মালিক তখন তাদের বসদের বিত্তবৈভব ভেবে কূল পাচ্ছেন না অর্থ খাতের বিজ্ঞজনরা। এ অবস্থায় কোন খাতে দুর্নীতি নেই, সে প্রশ্ন অভিজ্ঞ মহলকে ভাবিয়ে তুলছে। 

দেশের কজন চিহ্নিত লুটেরা ছাড়া আপমার মানুষের এক ও অভিন্ন অভিমত, হলমার্কসহ তৎকালীন সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদকে বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে ব্যাংক খাতে এতটা নৈরাজ্য সৃষ্টি হতো না। আর সে দুর্নীতির ভাইরাস সব খাতে ভাইরাসের মতো অবাধে ছড়িয়ে পড়ার সুযোগ পেত না। দুর্নীতির লাগাম টানতে তৎকালীন সোনালী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের বিচার হওয়া সময়ের দাবি।
 

রিটেলেড নিউজ

আখাউড়ায় নেশার ভয়াল আগ্রাসন : টাকার জোয়ারে ভাসছে মাদক বিক্রেতা ডুবছে যুবসমাজ  

আখাউড়ায় নেশার ভয়াল আগ্রাসন : টাকার জোয়ারে ভাসছে মাদক বিক্রেতা ডুবছে যুবসমাজ  

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : ইসমাঈল হোসেন : মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর মনোভাব সম্পর্কে সংশয়ের কোন অবকাশ নেই। তবে বাস্তবতা ...বিস্তারিত


আসন্ন কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৪৪ জনের প্রার্থীতা বৈধ : ২ জনের বাতিল

আসন্ন কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৪৪ জনের প্রার্থীতা বৈধ : ২ জনের বাতিল

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : ...বিস্তারিত


আখাউড়ায় স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে ৪ সন্তানের পিতার বিষপানে আত্মহত্যা

আখাউড়ায় স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে ৪ সন্তানের পিতার বিষপানে আত্মহত্যা

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : ...বিস্তারিত


আখাউড়ার ইটনা গ্রামে গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

আখাউড়ার ইটনা গ্রামে গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : ইসমাঈল হোসেন (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের ইটনা গ্রামে সু...বিস্তারিত


ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ১৪ বছরের এক মাদ্রাসাছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ১৪ বছরের এক মাদ্রাসাছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : ইসমাঈল হোসেন (ব্রাহ্মণবাড়িয়া):  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ১৪ বছরের এক মাদ্রাসাছাত্রীকে জোরপূর্...বিস্তারিত


মেহেরপুরে মাদ্রাসার খাদেমকে কুপিয়ে হত্যা

মেহেরপুরে মাদ্রাসার খাদেমকে কুপিয়ে হত্যা

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : মেহেরপুর প্রতিনিধি : গাংনী উপজেলার কাজীপুর ইউনিয়নের সাহেবনগর গ্রামে ছহির উদ্দীন (৭০) নামে মাদ্রাস...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

অধ্যক্ষ মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল খোশনবীশের দুরদর্শীতায় মীরপুর বাংলা স্কুল এ্যান্ড কলেজের শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সম্মাননা লাভ

অধ্যক্ষ মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল খোশনবীশের দুরদর্শীতায় মীরপুর বাংলা স্কুল এ্যান্ড কলেজের শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সম্মাননা লাভ

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : আসাদুজ্জামান বাবুল : গ্রীক বীর 'আলেক্সান্ডার দ্য গ্রেট' ভারতীয় উপমহাদেশে পদার্পণ করেই এখনকার প...বিস্তারিত


কীর্তিমান সমাজ সেবক আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর কর্মজীবন ও কমলগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী ছলিমবাড়ী পরিবারের কৃতিত্ব 

কীর্তিমান সমাজ সেবক আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর কর্মজীবন ও কমলগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী ছলিমবাড়ী পরিবারের কৃতিত্ব 

জিএসএসনিউজ ডেস্ক : : শাহ মোঃ মোতাহির আলী আজমী, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার): মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলা একটি বৈচিত্র্যময় উ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর